বাংলাদেশ ফেস্টিভালকে ঘিরে সিডনিতে উৎসবের আমেজ

13

সোনালী ডেস্ক :   প্রবাসের মাটিতে এক টুকরো বাংলাদেশের প্রতিচ্ছবি হবে অস্ট্রেলিয়ার সিডনির ব্যাংকসটাউন পল কেটিং পার্ক। হাজারো প্রবাসী বাংলাদেশির পদচারণায় মুখরিত হবে সিডনির এই প্রাণকেন্দ্র। প্রথমবারের মতো অস্ট্রেলিয়ায় ‘বাংলাদেশ ফেস্টিভ্যাল’কে ঘিরে প্রবাসী বাংলাদেশিদের মধ্যে তাই দেখা গেছে উৎসবের আমেজ।

বৃহস্পতিবার ঢাকায় পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড ও ফিজিতে প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য ২৮  অক্টোবর শনিবার এই উৎসবের আয়োজন করেছে এনটিভি অস্ট্রেলিয়া। ইতিমধ্যে ব্যানার, ফেস্টুন ও পোস্টারে ছেয়ে গেছে সিডনির বাংলাদেশি অধ্যুষিত এলাকাগুলো। চলছে অনুষ্ঠান আয়োজনের জোর প্রস্তুতি। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন এনটিভির চেয়ারম্যান ও ব্যাবস্থাপনা পরিচালক আলহাজ মোহাম্মদ মোসাদ্দেক আলী।

বুধবার সিডনির লেকাম্বা এলাকার বনফুল রেস্তোঁরায় উৎসব উপলক্ষে এক প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন এনটিভি অস্ট্রেলিয়ার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) রাশেদ শ্রাবন। উপস্থিত ছিলেন অস্ট্রেলিয়ায় বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সভাপতি রেজাউল হক, বাংলাদেশ ফেস্টিভ্যালের ইভেন্ট কো-অর্ডিনেটর জাহাঙ্গীর হাবিব, এনটিভি অস্ট্রেলিয়ার পাবলিক রিলেশন্স অফিসার সাইমুম সারোয়ার, এনটিভির সিডনি প্রতিনিধি ও সিডনি ইউনিভার্সিটির সায়েন্টিস্ট সৈয়দ ফাওযুল আজীম, এনটিভি অস্ট্রেলিয়ার কালচারাল সেক্রেটারি ইফতেখার আলম সোহেল, আমরা বাংলাদেশির সংগঠক ও চার্লস স্টার্ট ইউনিভার্সিটির শিক্ষক শিবলী আবদুল্লাহ, এনটিভির বিশেষ প্রতিনিধি আরিফুর রহমান, এনটিভির চিফ ক্যামেরাম্যান জিয়া জহির পল্লব এবং হেড অব এনটিভি অনলাইন ফকরউদ্দীন জুয়েল।

সভায় এনটিভি অস্ট্রেলিয়ার সিইও রাশেদ শ্রাবণ জানান, মূলত প্রবাসের মাটিতে বাংলাদেশের সংষ্কৃতিকে নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরাটাই আমাদের লক্ষ্য। প্রাণের উৎসবকে ঘিরে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘এই প্রথম বাংলাদেশি কোনো টেলিভিশন চ্যানেল অস্ট্রেলিয়ায় এতো বড় অনুষ্ঠানের আয়োজন করতে যাচ্ছে। সরেজমিন দেখা গেছে, সিডনির বাংলাদেশি অধ্যুষিত এলাকা রকডেল, লেকাম্বা, কোরগাহ, মিন্টো, ক্যাম্ববেল টাউন, ব্যাংকসটাউনের বিভিন্ন স্থানে ব্যানার, ফেস্টুন ও স্টিকারে ছেয়ে গেছে। অনুষ্ঠানস্থল ব্যাংকসটাউনের পলকেটিংপার্কেও সব ধরণের প্রস্তুতি ও আনুষ্ঠাতিকতা সম্পন্ন হয়েছে। বাংলাদেশিরাও অনুষ্ঠান নিয়ে আলাপ-আলোচনা করছেন। অনুষ্ঠানে নাচ, গান, ফ্যাশন শো, মুখ ও হাতের আল্পনার পাশাপাশি থাকবে প্রবাসী বাংলাদেশি তরুণ-তরুণীদের জমজমাট সব পরিবেশনা। এছাড়াও থাকবে ক্ল্যাসিক্যাল ও মডার্ন ড্যান্স, বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত অস্ট্রেলীয় তরুণ-তরুণী এবং শিশুদের পরিবেশনা। বিশেষ আয়োজনে থাকবে ক্লোজআপ ওয়ান তারকা শিল্পী রন্টি দাশের সংগীত পরিবেশনা।’

আগামী শনিবার দর্শকদের জন্য উন্মুক্ত এই অনুষ্ঠান শুরু হবে স্থানীয় সময় বেলা ৩টায়। চলবে রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত। অনুষ্ঠানস্থল সাজানো হবে এনটিভির লোগো ও মনোগ্রামে। অনুষ্ঠানে উপস্থাপনা করবেন এনটিভির বিশেষ প্রতিনিধি আরিফুর রহমান ও স্থানীয় সংগীত শিল্পী তমা।

বাংলাদেশ উৎসব উপলক্ষে অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড ও ফিজির প্রবাসী বাংলাদেশিদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বাংলাদেশ ফেস্টিভ্যালের আয়োজন সম্পন্ন করতে সার্বিক সহযোগিতা করছে নিউ সাউথ ওয়েলস (এনএসডব্লিউ) সরকার, চ্যানেল নাইন, সিডনি প্রেস অ্যান্ড মিডিয়া কাউন্সিল এবং আমরা বাংলাদেশি।

রাইজিংবিডি